09 May

সি প্রোগ্রামিং এর বিস্তারিত নিয়ে ধারাবাহিক পর্ব ০১:

প্রথমে আমরা জানবো অপারেটর সম্পর্কে
Programming C Operator

Operator: অপারেটর এক ধরণের প্রতীক (Symbol) যা ভ্যালু (Value) অথবা ভ্যারিয়েবলকে অপারেট করতে পারে। প্রধানত অপারেটর ছয় ধরণের
যেমন: Arithmetic, Assignment, Relational, Conditional, Logical & Bitwise Operator.

Arithmetic Operator: এরিথমেটিক অপারেটর গাণিতিক হিসাব নিকাশ করে যেমন- যোগ(+), বিয়োগ(-), গুন(*), ভাগ(/) এবং ভাগশেষ(%) এর কার্য সম্পন্ন করে।

Assignment Operator: ভ্যারিয়েবলে ভ্যালু এসাইন করা বা জমা রাখার জন্য Assignment অপারেটর ব্যবহৃত হয়।যেমন:( =, +=, -=, *=, /=, %=).

Relational Operator: সি প্রোগ্রামিং এ রিলেশনাল অপারেটর দুটি “অপারেন্ডের” মধ্যে সম্পর্ক যাচাই করে। রিলেশন সত্যি (true) হলে 1 রিটার্ন করে; রিলেশন মিথ্যা (false) হলে 0 রিটার্ন করে। যেমন: ( ==, <, >, !=, <=, >= )

সিদ্ধান্ত গ্রহণ(decision making) এবং লুপ(loop) এ রিলেশনাল অপারেটর ব্যবহৃত হয়।
Conditional_Operator: যখন কোনো অপারেটর তিনটি অপারেন্ড (Operand) নিয়ে কাজ করে তাকে কন্ডিশনাল/টারনারী অপারেটর বলে। কন্ডিশনাল অপারেটর ” ?: “

Logical Operator: সি প্রোগ্রামিং এ Logical AND “&&” – উভয় অপারেন্ড true হলে True, Logical OR ” || “- যেকোনো একটি অপারেন্ড true হলে True এবং Logical NOT ” ! ” – অপারেন্ড false হলে True.
অপারেটরসমূহকে লজিক্যাল(Logial) অপারেটর বলা হয়। সি প্রোগ্রামিং এ সিদ্ধান্ত গ্রহণে (in decision making ) সচারচর লজিক্যাল অপারেটর ব্যবহৃত হয়।

Bitwise Operator: হিসাব নিকাশের সময় গাণিতিক অপারেশন যেমন- যোগ, বিয়োগ, গুণ এবং ভাগ বিট-লেভেলে রূপান্তরিত হলে দ্রুত প্রোসেসিং হয় এবং শক্তি সংরক্ষিত হয়।
“বিটওয়াইজ AND(&) অপারেটর:
বিটওয়াইজ অপারেটরের দুটি অপারেন্ডের বিট যদি 1 হয় তাহলে বিটওয়াইজ AND অপারেটর এর আউটপুট 1 হবে।
কিন্তু যদি বিটওয়াইজ অপারেটর এর যেকোনো একটি অপারেন্ড 0 (শূন্য) হয় তাহলে আউটপুট 0 (শূন্য) হবে।
“বিটওয়াইজ OR (|) অপারেটর:
বিটওয়াইজ অপারেটরের দুটি অপারেন্ডের যেকোনো একটির বিট যদি 1 হয় তাহলে বিটওয়াইজ OR অপারেটর এর আউটপুট 1 হবে।
কিন্তু যদি বিটওয়াইজ অপারেটর এর দুটি অপারেন্ড-ই 0(শূন্য) হয় তাহলে আউটপুট 0(শূন্য) হবে।

“বিটওয়াইজ XOR(^) অপারেটর
XOR এর পূর্ণরুপ হলো exclusive OR । বিটওয়াইজ অপারেটর এর দুটি অপারেন্ড যদি পরস্পর বিপরীত হয় তাহলে বিটওয়াইজ XOR অপারেটর এর আউটপুট 1 হবে।
কিন্তু যদি বিটওয়াইজ অপারেটর এর দুটি অপারেন্ড-ই একই রকম হয় তাহলে আউটপুট 0(শূন্য) হবে।

“বিটওয়াইজ পূরক(~) অপারেটর:
বিটওয়াইজ পূরক(compliment) অপারেটর হলো উনারী (unary) অপারেটর যা কেবল মাত্র একটি অপারেন্ডের উপর কাজ করে। ইহা 1 কে পরিবর্তন করে 0 করে এবং 0 কে পরিবর্তন করে 1 করে। ইহাকে ~ এর মাধ্যমে চিহ্নিত করা হয়।
“বিটওয়াইজ Left Shift( <<) অপারেটর:
Left shift অপারেটর সমস্ত বিটকে নির্দিষ্ট সংখ্যক বিট বামে সরিয়ে দেয়।
“বিটওয়াইজ Right Shift(>>) অপারেটর:
Right Shift অপারেটর সমস্ত বিটকে নির্দিষ্ট সংখ্যক বিট ডানে সরিয়ে দেয়। ইহাকে >> এর মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়।
সি প্রোগ্রামিং এ বিট-লেভেল অপারেশন সম্পন্ন করার জন্য বিটওয়াইজ অপারেটর ব্যবহৃত হয়।

Leave a reply